সংবাদ শিরোনাম

 

ক্রীড়া ডেস্ক : চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগের ম্যাচে বার্সেলোনাকে উড়িয়ে দিয়ে জয় পেয়েছে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইন। অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার জোড়া গোলে বার্সাকে ৪-০ ব্যবধানে হারিয়েছে পিএসজি।

মঙ্গলবার রাতে প্যারিসে পিএসজি রীতিমত বিধ্বস্ত করে দিয়েছে বার্সাকে। লিওনেল মেসি ও লুইস সুয়ারেজ তো মাঠে পাত্তাই পেল না। যা একটু আক্রমণ করেছেন ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার। কিন্তু তাতেও খুব একটা সুবিধা করে উঠতে পারেনি লুইস এনরিকের শিষ্যরা।

পিএসজির হয়ে দাপুটে ভাবে খেলেছেন ডি মারিয়া-এদিনসন কাভানিরা। দলের হয়ে জোড়া গোল করেছেন ডি মারিয়া। আর বাকি দুটি গোল করেছেন ইউলিয়ান ড্রাক্সলার ও কাভানি। আর এই জয় দিয়ে ফলে মধুর প্রতিশোধই নিল পিএসজি।

ম্যাচের শুরু থেকেই দাপট দেখিয়ে খেলতে থাকে পিএসজি। চতুর্থ মিনিটে গোলরক্ষককে একা পেয়ে যান কাভানি, কিন্তু ডি মারিয়ার ক্রস ঠিকমতো নিয়ন্ত্রণে নিতে পারেননি উরুগুয়ের স্ট্রাইকার। চার মিনিটের ব্যবধানে আরও দুবার মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেনকে পরীক্ষার সম্মুখীন করে স্বাগতিকরা।

টানা আক্রমণে ম্যাচের অষ্টাদশ মিনিটেই সাফল্য পায় পিএসজি। ২১ গজ দূর থেকে অসাধারণ ফ্রি-কিকে রক্ষণ দেয়ালের উপর দিয়ে বল জালে পাঠান ডি মারিয়া। টের স্টেগেনের এখানে কিছুই করার ছিল না।

বার্সা ২৭তম মিনিটে প্রথম সুযোগ পেলেও তা লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। ব্রাজিলিয়ান তারকার রক্ষণচেরা পাস ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়েছিলেন আন্দ্রে গোমেস। কিন্তু গোলরক্ষকের সোজাসুজি শট মেরে বসেন তিনি।

৪০তম মিনিটে দলের ব্যবধান বাড়ান ড্রাক্সলার। মার্কো ভেরোত্তির পাস ধরে ডান দিক থেকে কোনাকুনি শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ড্রাক্সলার। জানুয়ারিতে ভলফসবুর্গ থেকে আসা ড্রাক্সলার ফরাসি চ্যাম্পিয়নদের হয়ে এই নিয়ে নয় ম্যাচে পাঁচ গোল করলেন।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেও একই অবস্থা। পিএসজির আক্রমণে ব্যস্ত বার্সার রক্ষণভাগ। তবে প্রতিপক্ষকে ঠেকাতে ব্যর্থ হয়েছে বার্সা। ৫৫তম মিনিটে প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে বাঁ-পায়ের বাঁকানো শটে স্কোরলাইন ৩-০ করেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড ডি মারিয়া।

৭১তম মিনিটে বেলজিয়ামের ডিফেন্ডার থমাসের কোনাকুনি পাস পেয়ে দারুণ ক্ষিপ্রতায় প্রথম শটেই টের স্টেগেনকে পরাস্ত করেন উরুগুয়ের স্ট্রাইকার কাভানি। এবারের আসরে এটা তার সপ্তম গোল।

গত চার বছরে দুবার কাতালান ক্লাবটির কাছে হেরেই ইউরোপ সেরার মঞ্চ থেকে ছিটকে পড়া পিএসজি এবার দৃশ্যপট পাল্টে দেওয়ার চ্যালেঞ্জ ছুঁড়েছিল। সে লক্ষ্যে ঘরের মাঠে জিতে এগিয়ে রইলো তারা।

ফিরতি পর্বে নিজেদের মাঠে ঘুরে দাঁড়ানোর কিন্তু মোটেও অসম্ভব নয় ২০১৪-১৫ মৌসুমের চ্যাম্পিয়নদের।

দিনের অপর ম্যাচে নিজেদের মাঠে বরুসিয়া ডর্টমুন্ডকে হারিয়েছে বেনফিকা।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম