সংবাদ শিরোনাম

 

মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জল,  ঝিনাইদহ সংবাদদাতা :  গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সে আর সেখানে চলছে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে মাদক বেচাকেনা।  মহেশপুর উপজেলাটি ভারত সীমান্তে ঘেরা হওয়ায় ও সহজ লভ্য হওয়ার কারনে এলাকার যুবসমাজ ঝুকে পড়েছে মরন নেশা সর্বনাশা ইয়াবা ও নিষিদ্ধ ফেনসিডিল সেবনে। এদিকে অভিভাবক মহল রয়েছে উদ্বিগ্ন, এভাবে যদি মাদক বেচাকেনা চলতে থাকে তাহলে হয়তো একদিন যুবসমাজ হারিয়ে যাবে কালের গহ্বরে। উপজেলার সীমান্ত ঘেরা এলাকার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ৪নং স্বরুপপুর ইউনিয়নের  বিভিন্ন স্থানে প্রকাশ্যে  মাদক বিকিকিনি হচ্ছে বলে জানা যায়।  তথ্য অনুসন্ধানে জানা যায়, পেপুলবাড়ীয়া গ্রামে গড়ে উঠেছে মাদকের আকঁড়া । এছাড়াও বিভিন্ন  চোরাচালানের ব্যবসায় শীর্ষে পেপুলবাড়ীয়া। এলাকাবাসী জানান যে, দীর্ঘ ৫ বছর যাবত এই চোরাচালানের সাথে সংযুক্ত রয়েছে পেপুলবাড়ীয়া গ্রামের কিছু মাদক ব্যবসায়ী, যারা শুধু গ্রাম নয় জনসাধারনের জন্য বিপদজনক হয়ে দাড়িয়েছে। উল্লেখযোগ্য মৃত নুর ইসলাম এর পুত্র উজ্জল মিয়া (৩৭), নাসির উদ্দীন এর পুত্র  তরুণ মিয়া (৩০), মৃত রবিউল ইসলাম, এর পুত্র মিন্টু (৩১), ইশের আলী এর পুত্র হাশেম (৪৬), মোংলার পুত্র শরিফুল (৩৭) ও কওসারের পুত্র মিরাজ (২০) এর সাথে সংঘ বদ্ধ হয়ে প্রতিনিয়ত ভারত থেকে এসমস্ত মাদক এনে দেশের যুব সমাজ ধ্বংস করছে। এদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহন না করলে দেশ জাতি সর্ব স্তরের মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ হবে। এব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছে এলাকার সুধী জনসাধারন ।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম