সংবাদ শিরোনাম

 

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিবেদক : তথ্যও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন ২০২১ সালের মধ্যে সরকারি সেবার ৯০ শতাংশ অনলাইনে হবে। সারা দেশে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার বেড়েছে বলেই উল্লেখযোগ্য মাত্রায় দুর্নীতি, হয়রানি কমেছে।

তিনি গতকাল বুধবার আইসিটি টাওয়ারের বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল অডিটোরিয়ামে ‘জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল বাস্তবায়ন’ সংক্রান্ত এক সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে  প্রধান অতিথি ছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমত আরা সাদেক।

পলক বলেন, `নিজের মানসিকতার পরিবর্তনই সবচেয়ে বড় শুদ্ধাচার। সর্বোত্তম শুদ্ধাচার চর্চার মাধ্যমে ই-গর্ভনেন্স বাস্তবায়িত হবে’।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশের মূল অনুষঙ্গই হচ্ছে ই-গভার্নেন্স। ই-গভার্নেন্স প্রতিষ্ঠায় জোর দেয়ার ফলে আজ আমরা উপজেলা পর্যায় পর্যন্ত ই-ফাইলিং কর্মকান্ড নিয়ে যেতে পেরেছি এবং প্রশাসনের সকল স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ প্রযুক্তি শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে ই-গভার্নেন্স বাস্তবায়নে কাজ করছে।’

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমত আরা সাদেক বলেন, ‘সরকারি সেবা প্রদান ও প্রাপ্তি সহজলভ্য করার জন্য আমাদেরকে নিরলসভাবে কাজ করলেই শুদ্ধাচার প্রতিষ্ঠা করা সহজতর হবে। এজন্য তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারের কোন বিকল্প নেই। তথ্যপ্রযুক্তির প্রয়োজনীয় ব্যবহার শুদ্ধাচার চর্চায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।’

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদারের সভাপতিত্বে উক্ত সেমনিারে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. হারুনুর রশিদ, অতিরিক্ত সচিব পার্থ প্রতিম দেব, অতিরিক্ত সচিব সুশান্ত কুমার সাহা, আইসিটি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বনমালী ভৌমিকসহ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম