সংবাদ শিরোনাম

 

বিনোদন ডেস্ক : তার লেখা চিঠির সূত্র ধরে ‘ডুব’ চলচ্চিত্র দেখে সঠিক সিদ্ধান্ত নেবেন সেন্সরবোর্ডের সদস্যরা— এমনটাই মনে করছেন অভিনেত্রী ও নির্মাতা মেহের আফরোজ শাওন। ছবিটিতে দেশের অালোচিত কথাসাহিত্যিক ও শাওনের স্বামী হুমায়ুন আহমেদের জীবনের ‘স্পর্শকাতর’ ঘটনা আছে বলে তিনি সন্দেহ করছেন।

অভিযোগের সত্যতা যাচাইযের পর ‘ডুব’-এর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত দেওয়ার দাবীতে লেখা শাওনের চিঠিটি ১৩ ফেব্রুয়ারি সেন্সরবোর্ডের কাছে পৌঁছেছে। সেন্সরবোর্ডের সদস্য সচিব মুন্সী জালাল উদ্দিন চিঠি পেয়েছেন বলে স্বীকার করেছেন। তিনি জানান, ছবিটি দেখার পর এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত  নেবেন বোর্ডের সদস্যরা।

শাওন জানান, ‘ডুব’-এর সংশ্লিষ্ট অভিনেত্রীর সাক্ষাৎকার, দেশি-বিদেশি পত্রিকার খবরের ওপর ভিত্তি করে বোঝা যাচ্ছে যে, ছবিটিতে হুমায়ুন আহমেদের জীবনের কিছু ঘটনা রয়েছে।

শুক্রবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপে শাওন ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘হুমায়ুন আহমেদ আমাদের জাতীয় সম্পদ। তার জীবনের ছায়া অবলম্বনে ছবি তৈরি করতে গেলেও যথেষ্ট গবেষণার দরকার আছে, দরকার আছে অনুমতি নেওয়ার। হুমায়ুন আহমেদ পাশের বাসার ভাড়াটিয়া নন যে, ভাবীদের কাছে গল্প শুনে ছবি বানিয়ে ফেলা যাবে!’

শাওন জানান, হলুদ সাংবাদিকতার ওপর ভিত্তি করে কিংবদন্তি লেখক হুমায়ুন আহমেদের  জীবনের ভুল তথ্য, ভুল ইমেজ তুলে ধরা হয়ে থাকতে পারে ছবিটিতে। এ কারণেই সেন্সরবোর্ডের কর্তাদের চিঠি পাঠিয়ে ছবিটির ব্যাপারে সুচিন্তিত সিদ্ধান্ত নেওয়ার অনুরোধ করেছেন তিনি।

শাওন আরও বলেন, ‘সেন্সরবোর্ডের সদস্যদের ওপর আমার সম্পূর্ণ আস্থা রয়েছে। তারা অভিজ্ঞতা সম্পন্ন মানুষ। আমি মনে করি, বিতর্কিত কোনো কিছুকে তারা সমর্থন করবেন না।’

যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘ডুব’ তৈরির ঘোষণার পর থেকে শুরু হয়েছে আলোচনা-সমালোচনা। শুটিং চলাকালে ভারতীয় একটি পত্রিকায় খবর ছড়ায় যে, ছবিটিতে হুমায়ুন আহমেদের জীবনের কিছু ঘটনাবলি তুলে ধরা হয়েছে। নির্মাতা ফারুকী তখন থেকেই এমন সমালোচনাকে ভিত্তিহীন বলছেন।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম