সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাঙামাটি : কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে রাঙামাটির বাঘাইছড়ি পৌরসভার ভোট গ্রহণ চলছে। কে এম নুরুল হুদার নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের নির্বাচন কমিশন দায়িত্ব গ্রহণের পর এটাই প্রথম ভোট। শনিবার সকাল আটটা থেকে শুরু হওয়া এই ভোট চলবে বিকাল চারটা পর্যন্ত।

এ নির্বাচনে মেয়র পদে লড়ছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. জাফর আলী খান (নৌকা), বিএনপির ওমর আলী (ধানের শীষ) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুর রহমান (মোবাইল ফোন)। এ ছাড়া সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৫ জন এবং সংরক্ষিত আসনে লড়ছেন ছয় জন। পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ১০ হাজার ১৭৭ জন।

নির্বাচনকে ঘিরে পৌর এলাকায় কঠোর নিরাপত্তার বলয় তৈরি করেছে উপজেলা প্রশাসন। শুক্রবার কড়া নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে ভোট কেন্দ্রগুলোতে নির্বাচনী সরঞ্জাম পাঠানো হয়।

নব গঠিত নির্বাচন কমিশনের এটি প্রথম নির্বাচন হওয়ায় বেশ গুরুত্ব সহকারে নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন। নির্বাচনের সার্বিক অবস্থা জানতে এবং নির্বাচন সুষ্ঠু করতে শুক্রবার বাঘাইছড়িতে উপজেলা প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উর্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করেন নির্বাচন কমিশনার সাহাদাৎ হোসেন।

শুক্রবার বাঘাইছড়ি সফর করেন জেলা প্রশাসক মানজারুল মান্নান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ মোয়াজ্জেম হোসাইন, জেলা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী মোহাম্মদ মোহসেন, পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল হাসান প্রমুখ।

সকাল থেকেই বিভিন্ন কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট দিতে দেখা গেছে ভোটারদের। কেউ তাদেরকে বাধা নিয়েছে বা ভয় দেখিয়েছে এমন কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

শন্তিপূর্ণ নির্বাচনে ভোট দিতে পেরে খুশি ভোটার ও প্রার্থীরা। কেন্দ্রগুলোতে সকাল থেকে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল লক্ষ্যণীয়। প্রতিটি কেন্দ্রে রয়েছে পুলিশ ও বিজিবির সদস্য। টহল আছে র‌্যাব-৭ এর সদস্যরা।

বাবুপাড়া কেন্দ্রের নিরাপত্তার দায়িত্বে চিলেন রাঙামাটির সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শরীফ। তিনি বলেন, সকাল থেকে কোথাও গোলযোগের কোনো খবর পাননি তারা।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা নাজিমউদ্দিন বলেছেন, ‘যে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট শুরু হয়েছে সেভাবে শেষ হবে এবং নির্বাচন পরবর্তীও বাঘাইছড়ির পরিস্থিতি শান্ত থাকবে।’


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম