সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম : প্রাক্তন পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলার তদন্ত শেষ পর্যায়ে রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মিতু হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার মো. কামরুজ্জামান জানিয়েছেন, মিতু হত্যা মামলার তদন্ত এখন শেষ পর্যায়ে রয়েছে। সব ক্লু খতিয়ে দেখা হচ্ছে। মামলার বাদী বাবুল আক্তার ছাড়াও মিতুর বাবা মাসহ মিতুর বাসায় যাতায়াতকারী একাধিক নিকটাত্মীয়কে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

পুলিশের একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, মিতু হত্যাকাণ্ডে বাবুল আক্তারকে এখনো অভিযুক্ত করা হয়নি। তবে পুলিশের বিশেষ শাখার এসআই আকরামকে কৌশলে হত্যার অভিযোগে বাবুল আক্তার যে কোন সময় ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে।

মিতু হত্যার তদন্তের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট একাধিক পুলিশ কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছেন, বাবুল আক্তারকে গোয়েন্দা নজরদারিতে রাখা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা যায়, বাবুল আক্তারের স্ত্রী মিতু হত্যা মামলায় মিতুর বাবা প্রাক্তন পুলিশ পরিদর্শক মোশাররফ হোসেন প্রথমে বাবুল আক্তারকে সন্দেহ না করলেও এখন তিনি বাবুল আক্তারের ওপর বিশ্বাস হারিয়েছেন। এ ছাড়া পরকীয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে এসআই আকরামকে বাবুল আক্তার কৌশলে হত্যা করিয়েছেন বলে সংবাদ সম্মেলন করে অভিযোগ তুলেছেন এসআই আকরামের ৫ বোন।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৫ জুন সকালে চট্টগ্রাম মহানগরীর ও আর নিজাম রোডের বাসা থেকে ছেলেকে স্কুল বাসে তুলে দিতে যাওয়ার সময় বাসার কাছেই প্রকাশ্যে রাস্তায় গুলি ও ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয় বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতুকে। এ ঘটনায় বাবুল আকতার বাদী হয়ে পাঁচলাইশ থানায় মামলা করেন। এই মামলায় গ্রেপ্তার আসামিদের মধ্যে দুইজন বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম