সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : ‘বন্দিদের সংশোধন, সমাজে পুনর্বাসন’- স্লোগানকে সামনে রেখে ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে কারাসপ্তাহ-২০১৭। শেষ হবে আগামী ৪ মার্চ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কারা অধিদপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখান উদ্দীন।

ইফতেখার উদ্দীন বলেন, ‘কারাগারে সেবার মান বৃদ্ধি, এটিকে সংশোধনাগারে রূপান্তরে আরো একধাপে এগিয়ে যাওয়া, করা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে কাজের উদ্দীপনা বৃদ্ধি, কারাগার সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণা পরিবর্তন, কারা কর্মকর্তা-বন্দি ও তাদের স্বজনদের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে সেতুবন্ধন সৃষ্টি, কারা কর্মচারীদের দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন এবং জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদের বিস্তার ঠেকাতে ভূমিকা পালনে করা সপ্তাহ-২০১৭ উদযাপন করা হবে। তাই এবারের স্লোগান নির্ধারণ করা হয়েছে বন্দিদের সংশোধন, সমাজে পুনর্বাসন।’

তিনি বলেন, কারাসপ্তাহ উপলক্ষে দেশের ৬৮টি কারাগারে সপ্তাহব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। এর মধ্যে সকল কারাগারে তথ্য ও সেবাকেন্দ্র পরিচালনা করা হবে। কয়েকটি কারাগারে বন্দিদের উৎপাদিত পণ্য নিয়ে কারা মেলার আয়োজন করা হবে। কারারক্ষী ও বন্দিদের নিয়ে বিশেষ দরবার, স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং কারারক্ষীদের নিয়ে বিশেষ প্যারেড ও প্রীতিভোজের আয়োজন করা হবে।

‘২৬ ফেব্রুয়ারি ফজরের নামাজের পর সকল কারা মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে কারা সপ্তাহের সূচনা হবে। ওই দিন বেলা ১১টায় গাজীপুরের কাশেমপুর কারাগারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সপ্তাহের উদ্বোধন ঘোষণা করবেন।’  জানান কারা মহাপরিদর্শক।

তিনি আরো বলেন, ‘এক সময় কারাগার শুধুমাত্র সাজা কার্যকরের প্রতিষ্ঠান হিসেবে মানা হতো। বর্তমানে সাজা কর্যকরের পাশাপাশি আসামিরা যেন কারাগার থেকে বের হয়ে পুনরায় অপরাধে না জড়ায় সে লক্ষ নিয়ে আমরা কাজ করছি।

বন্দিদশা থেকে বের হয়ে আসামিরা যেন সমাজে পুনঃপ্রতিষ্ঠিত হতে পারেন সে ব্যাপারে কারা অধিদপ্তরের বিভিন্ন উদ্যোগের বিষয়ে দৃষ্টিপাত করে ইফতেখার উদ্দীন বলেন, বন্দিদের পুনর্বাসনের লক্ষে কারা প্রশাসন বিভিন্ন ধরনের কার্যক্রম পরিচালনা করছে। তাদের জন্য বিভিন্ন প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এর মধ্যে প্লাম্বার, টাইলস লেইন, মেসনারি, মোকাসিন তৈরি, হাউজহোল্ড ইলেক্ট্রনিক ওয়ারিং, এসি-ফ্রিজ মেরামত, ভরমি কমপোস্ট, মাশরুম চাষ, পুরুষ ও মহিলাদের মেকওভার কোর্স উল্লেযোগ্য।

প্রসঙ্গত, ২০০৬ সালে প্রথমবারের মতো কারাসপ্তাহ শুরু হয়। ২০০৭ ও ২০০৮ সাল পর্যন্ত এটি ধারাবাহিকভাবে চললেও ২০০৯ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত কারাসপ্তাহ উদযাপন বন্ধ ছিল। পরে ২০১৪ সালে কাশেমপুর কারাগারে ফের কারাসপ্তাহ উদযাপন শুরু হয়।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম