সংবাদ শিরোনাম

 

ক্রীড়া ডেস্ক : ঘরের মাটিতে দাপিয়ে বেড়ানো ভারতকে মাটিতে টেনে নামালো অস্ট্রেলিয়া। চার ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টে প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়া ২৬০ রানের জবাবে ১০৫ রানেই গুটিয়ে গেছে ভারতের ইনিংস। আর এর পেছনে মূল অবদান রেখেছেন অজি বোলার স্টিভ ও’কিফি। তিনি একাই নিয়েছেন ৬টি উইকেট। ১৩.১ ওভার বল করে রান খরচ করেছেন মাত্র ৩৫টি।

অস্টেলিয়া নিজেদের প্রথম ইনিংসে ২৬০ রানে অলআউট হলে ভারত ব্যাটিংয়ে নামে। তবে সপ্তম ওভারেই তারা হারিয়ে বসে মুরালি বিজয়ের উইকেটটি। এরপর ব্যাটসম্যানদের ধারাবাহিক আসা-যাওয়া লেগেই থাকে। অধিনায়ক বিরাট কোহলিও এদিন ফিরেছেন শূন্য হাতেই। দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছাতে পেরেছেন মাত্র তিন জন ব্যাটসম্যান। এরা হলেন মুরালি বিজয় (১০), লোকেশ রাহুল (৬১) এবং আজিঙ্কা রাহানে (১৩)। বাকি আটজনের মধ্যে চেতন পূজারা করেন সর্বোচ্চ ৬ রান। এতেই বোঝা যাচ্ছে অজি বোলারদের দাপট।

ও’কিফি নিয়েছেন সর্বোচ্চ ৬টি উইকেট। এছাড়া স্টার্ক ২টি, হ্যাজেলউড ও নাথান লায়ন ১টি করে উইকেট নিয়েছেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) পুনের মহারাষ্ট্র ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অজি অধিনায়ক স্মিথ। শুরুটা ভালোই করেছিলেন দুই ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ও ম্যাট রেনশ।

তবে দলীয় ৮২ রানে ওপেনিং জুটি ভাঙ্গেন ভারতীয় পেসার উমেশ যাদব। ব্যক্তিগত ৩৮ রানে ওয়ার্নারকে ফেরান তিনি। এর এক বল পরেই রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়েন আরেক ওপেনার রেনশ।

পেট খারাপ হওয়ায় (আপসেট স্টমাক) খুব দ্রুতই বাঁহাতি এ ওপেনার মাঠ ছাড়েন। তার বদলে চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নামেন শন মার্শ। সে সময় ক্রিজে ছিলেন অধিনায়ক স্মিথ।

তবে স্মিথ ও মার্শ খুব বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে পারেননি ক্রিজে। শন মার্শ ব্যক্তিগত ১৬ রানে এবং স্মিথ ব্যক্তিগত ২৭ রানে সাজঘরে ফিরেন। পিটার হ্যান্ডসকবও ২২ রানেই প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন। এরপরই খেই হারিয়ে ফেলে সফরকারীরা। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে বড় স্কোরের লক্ষ্য থেকে ছিটকে যায় তারা। কিন্তু শেষ সময়ে এসে দুর্দান্ত ব্যাটিং করে স্টার্ক দলের সংগ্রহ ২৬০-এ য়ে ঠেকায়।

ভারতের পক্ষে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট নিয়েছেন উমেশ যাদব। ৩টি উইকেট নিয়েছেন রবীচন্দ্রন অশ্বিন এবং রবীন্দ্র জাদেজা নিয়েছেন ২টি উইকেট।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম