সংবাদ শিরোনাম

 

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি : ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে কয়েক কিলোমিটার এলাকাজুড়ে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত ১২টা থেকে শুরু হওয়া এ যানজট শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত অব্যাহত রয়েছে।

এতে যাত্রীদের সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বৃহস্পতিবার বিকেলের পর মহাসড়কে যানবাহনের চাপ বেড়ে যাওয়া ও বিভিন্ন স্থানে দুর্ঘটনার কারণে এ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে বলে হাইওয়ে পুলিশ জানিয়েছে।

পুলিশ, যাত্রী, শ্রমিক ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে মহাসড়কের ধেরুয়া রেল ক্রসিং এলাকায় একটি ট্রাক আইল্যান্ডের ওপর উঠে গেলে যানজট শুরু হয়। দুর্ঘটনার পর যানবাহন থেমে থেমে চললেও রাত দেড়টার দিকে মহাসড়কের এ উপজেলার জামুর্কী নামক স্থানে প্রাইভেটকার ও ট্রাকের সংর্ঘষ হলে মহাসড়কের যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

যানজট এক পর্যায় মহাসড়কের চন্দ্রা থেকে টাঙ্গাইল বাইপাস এলাকা পর্যন্ত উভয় পাশে প্রায় ৫৫ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে বিস্তৃতি ঘটে। রাত ৩টার দিকে পুলিশ দুর্ঘটনা কবলিত দুটি ট্রাক ও প্রাইভেটকার মহাসড়ক থেকে সরিয়ে নিলে ৩টার পর থেকে থেমে থেমে যানচলাচল শুরু হলেও যানজটে আটকা পড়া যানবাহনের চালকরা গাড়ির মধ্যে ঘুমিয়ে পড়ায় যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটে।

এছাড়া সকাল ৬টার দিকে মহাসড়কের মির্জাপুর পৌর এলাকার পোস্টকামুরী চড়পাড়া নামক স্থানে একটি ট্রাক বিকল হলে পুনরায় যানজটের সৃষ্টি হয়। যানজট মহাসড়কের কালিয়াকৈর এলাকা থেকে মির্জাপুরের পাকুল্যা পর্যন্ত প্রায় ২৫ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে বিস্তৃতি ঘটে। অধিকাংশ যানবাহনকেই এক ঘণ্টার রাস্তা যেতে সাড়ে চার ঘণ্টা থেমে থাকতে হচ্ছে বলে চালকরা জানিয়েছেন।

বগুড়া থেকে আলু ভর্তি ট্রাকের চালক আশরাফ হোসেন জানান, রাত ৩টার দিকে টাঙ্গাইল বাইপাস এলাকায় এসে যানজটে আটকা পড়েন। যানজটের কারণে ৪০ মিনিটের রাস্তা পারি দিতে প্রায় তিন ঘণ্টা সময় লেগেছে।

সিরাজগঞ্জ থেকে কক্সবাজারগামী আনন্দ ভ্রমণের গাড়ির চালক মো. আক্কাছ আলী বলেন, রাত ১০টার দিকে সিরাজগঞ্জ থেকে যাত্রা শুরু করেছেন। মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে থেমে থেমে যানজট লাগছে। সকাল ৭টা পর্যন্ত তিনি মির্জাপুর বাইপাস পর্যন্ত আসতে পেরেছেন।

মির্জাপুর গোড়াই হাইওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খলিলুর রহমান পাটোয়ারি বলেন, মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে দুর্ঘটনা ও রাস্তায় যানবাহনের চাপ বৃদ্ধি পাওয়ায় মাঝে মধ্যেই যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। যান চলাচল স্বাভাবিক করার চেষ্টা চলছে।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম