সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে প্রথমবারের মতো জাতীয় পাট দিবস পালন করবে সরকার। ‘সোনালি আঁশের সোনার দেশ/পাট পণ্যের বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্যে আগামী ৬ মার্চ ‘জাতীয় পাট দিবস-২০১৭’ উদযাপন করা হবে।

মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে জাতীয় পাট দিবস উদযাপন উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম এ তথ্য জানান।

প্রতিবছর ৬ মার্চ জাতীয় পাট দিবস পালনের প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত হয় গত ৩০ জানুয়ারি। এরপর ৬ ফেব্রুয়ারি এ বিষয়ে পরিপত্র জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

দিবস উপলক্ষে আট দিনব্যাপী নানান কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের অর্থনীতি ও পরিবেশ সংরক্ষণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনকারী সোনালি আঁশ পাটের সম্ভাবনাগুলো বিকশিত করার মাধ্যমে অর্থনীতিতে গতি সঞ্চারের জন্য পাটসংশ্লিষ্ট সব উদ্যোগকে সমন্বিত করা এবং সংশ্লিষ্ট সব স্টেকহোল্ডার, পাটচাষি ও শ্রমিক, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় বা দফতরের কার্যক্রমের মধ্যে সমন্বয়ে সরকার ৬ মার্চকে জাতীয় পাট দিবস হিসেবে উদযাপনের ঘোষণা দিয়েছে।’

পাট প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আগামী ৯ মার্চ রাজধানীর খামারবাড়ীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে দিবসের মূল অনুষ্ঠান ও ৯ থেকে ১১ মার্চ পাটপণ্যের মেলা আয়োজন করা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠান উদ্বোধনের সম্মতি দিয়েছেন।’

দিবসটি উপলক্ষে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পাট ও পাটজাত পণ্য সহযোগে বর্ণিল আলোক সজ্জায় সজ্জিত করা হবে। প্রচারণার জন্য ব্যাপক সংখ্যক পোস্টার, লিফলেট, ব্যানার ও বিল বোর্ড স্থাপন করা হবে বলেও জানান তিনি।

মির্জা আজম বলেন, ‘পাট দিবসের গুরুত্ব এবং পাট-সংক্রান্ত বিষয়ে আগ্রহ সৃষ্টিতে ইতোমধ্যে সারা দেশে স্কুল পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে রচনা প্রতিযোগিতা হয়েছে। রচনা প্রতিযোগিতায় দেশের আটটি বিভাগ থেকে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অর্জনকারী মোট ২৪ জনকে প্র্রধানমন্ত্রী পুরস্কৃত করবেন।’

‘এ ছাড়া সেরা পাটচাষি, সেরা পাটবীজ উৎপাদনকারী, বেসরকারি সেরা পাটকল, সেরা কাঁচাপাট রফতানিকারক, সেরা পাটসুতা রফতানিকারক, সেরা বহুমুখী পাটপণ্য রফতানিকারক, সেরা উদ্যোক্তা ও সেরা পাটপণ্য রফতানিকারক প্রতিষ্ঠানসহ আট ক্যাটাগরিতে এবং পাটসংশ্লিষ্ট গবেষণা ও উদ্ভাবনের জন্য ২ জন ব্যক্তিকে পুরস্কার দেওয়া হবে’ বলেন বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী।

পাটজাত পণ্যের উদ্যোক্তরা এ পর্যন্ত ১৩৫ রকমের বহুমুখী পাটপণ্য উৎপাদন করেছেন জানিয়ে মির্জা আজম বলেন, ‘যা পাটজাত পণ্যের মেলায় প্রদর্শনের পাশাপাশি বিক্রয়ের ব্যবস্থা থাকবে। মেলা সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে।’

জাতীয় পাট দিবস উপলক্ষে ৪ মার্চ হাতিরঝিলে নৌ র‌্যালি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘নৌ র‌্যালিতে গ্রামের মতো পাট দিয়ে নৌকা বোঝাই হবে। এ ছাড়া ৫ মার্চ জাতীয় সংসদ ভবনের সামনে পাটের তৈরি ক্যানভাসে চিত্রাঙ্কন হবে। চারুকলার ২ শতাধিক শিক্ষার্থী চিত্রাঙ্কনে অংশ নেবে। পরে তাদের পুরস্কৃত করা হবে। ৬ মার্চ জাতীয় সংসদ ভবনের সামনে বর্ণাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করা হয়েছে।’

দিবসের মূল অনুষ্ঠানে স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, সংসদ সদস্য, সরকারি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা, বাংলাদেশে অবস্থিত কূটনৈতিক মিশনের প্রধান, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ ও সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডারদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

দেশের প্রায় চার কোটি লোক প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে পাটখাতের ওপর নির্ভরশীল জানিয়ে মির্জা আজম বলেন, ‘বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ এবং নিরন্তর প্রচেষ্টায় অভ্যন্তরীণ বাজারে পাট ও পাটজাত পণ্যের চাহিদা ব্যাপক বৃদ্ধি পেয়েছে।’


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম