সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক, ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : অমর একুশে বইমেলার পর্দা নামছে আজ (২৮ ফেব্রুয়ারি, মঙ্গলবার)। শেষ দিনে মেলায় দর্শনার্থীদের ভিড় ছিল লক্ষণীয়। শত ব্যস্ততার মাঝেও মেলায় ছুটে এসেছেন হাজারও বইপ্রেমী। তবে মেলায় এসে বাঙালির প্রাণের এ উৎসবকে বিদায় জানাতে হবে- এমনটা যেন মানতে কষ্ট হচ্ছে তাদের। বাঙালি সংস্কৃতির এ বিশাল মিলনমেলাকে মিস করবেন বলেও জানান তারা।

মঙ্গলবার মেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান প্রাঙ্গণে আগত বেশ কয়েকজন দর্শনার্থীর সঙ্গে কথা বললে তারা জানান, এক বছরের জন্য মেলাকে বিদায় জানাতে হচ্ছে। বাঙালি সংস্কৃতির এ বিশাল মিলনমেলাকে মিস করবেন।

রাজধানীর মিরপুর থেকে ব্যবসায়ী স্বামী আফজাল হোসেন ও দুই সন্তানকে নিয়ে বইমেলায় এসেছেন আসমা বেগম। তিনি বলেন, ব্যস্ততা থাকা সত্ত্বেও শেষ দিনে মেলায় ছুটে এসেছি। শেষের দৃশ্য মিস করতে চাইনি। তবে এক বছরের জন্য বইমেলা আমাদের থেকে আজ বিদায় নিচ্ছে। তাই একটু খারাপই লাগছে। মিস করবো বইমেলা।


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা বিভাগের পাঁচ বন্ধু একসঙ্গে এসেছেন বইমেলায়। তাদের মধ্যে আইয়ুব আলী নামের একজন বলেন, মাসব্যাপী চলা বইমেলায় যখনই সুযোগ পেতাম তখনই ছুটে আসতাম। বই কেনা ছাড়াও বন্ধুদের সঙ্গে বিকেলের আড্ডাটা ফেব্রুয়ারিতে বইমেলায় বেশ জমতো। তবে মেলার মঙ্গলবার শেষ দিন। আগামী এক বছর মিস করবো বইমেলা।

মাসব্যাপী অমর একুশে বইমেলা গত ১ ফেব্রুয়ারি উদ্বোধন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর  মঙ্গলবার সমাপনী উপলক্ষে সন্ধ্যায় বইমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখবেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান। বইমেলার প্রতিবেদন উপস্থাপন করবেন অমর একুশে বইমেলা ২০১৭ এর সদস্য সচিব ড. জালাল আহমেদ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সংস্কৃতি-বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি, বিশেষ অতিথি সংস্কৃতি-বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. ইব্রাহীম হোসেন খান। সভাপতিত্ব করবেন ইমেরিটাস অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম