সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : জঙ্গিরা জঙ্গিবাদের পথ পরিহার করলে আইনি সহায়তা দেওয়া  হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পাশাপাশি জঙ্গিদের পুনর্বাসন করার কথাও বলেছেন প্রধানমন্ত্রী।

বুধবার (০১ মার্চ) বিকেলে জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে  টেবিলে উত্থাপিত সরকার দলীয় সংসদ সদস্য কামাল আহমেদ মজুমদারের প্রশ্নের জবাবে সংসদ নেতা একথা বলেন।

এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে দিনের কার্যসূচি শুরু হয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। এদেশের মানুষ সাম্প্রদায়িকতা, জঙ্গিবাদকে ঘৃণা করে। দেশের মানুষের সুষম উন্নয়ন ও নিরাপত্তার জন্য সন্ত্রাস, সাম্প্রদায়িকতা ও জঙ্গিবাদ হুমকিস্বরূপ। সরকার জঙ্গিবাদ দমনে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির ভিত্তিতে কার্যকর পদক্ষেপ ও পরিকল্পনা গ্রহণ করে। এজন্য জঙ্গিদমনে সারাবিশ্বে বাংলাদেশ আজ রোল মডেল হিসেবে বিবেচিত।

জঙ্গিদমনে সরকারের ধারাবাহিকতা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জঙ্গি সংগঠনগুলোর অনলাইনভিত্তিক প্রচারণার দিকে গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর নজরদারি আরও বৃদ্ধি করা হবে। জনগণের মধ্যে জঙ্গিবাদী মতাদর্শের  ৠাডিক্যালাইজেশন না ঘটে সেজন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী এবং গোয়েন্দাসংস্থাগুলোর মাধ্যমে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। সন্ত্রাসী ও জঙ্গি কর্মকাণ্ড তাৎক্ষণিকভাবে মোকাবেলার জন্য একটি যুগোপযোগী স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর (এসওপি) তৈরি প্রক্রিয়াধীন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ভবিষ্যতে যেসব বিপথগামী জঙ্গিসদস্য জঙ্গিবাদের পথ থেকে ফিরে আসবে তাদেরকে আইনি সহায়তা দেওয়াসহ পুনর্বাসনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।‌’


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম