সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : ১৪ বছর পর জাতীয় সম্মেলনে পরিবর্তন এসেছে আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠন মহিলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে। নতুন কমিটিতে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন সংগঠনটির সদ্য সাবেক সহসভাপতি শাফিয়া খাতুন। সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন মাহমুদা বেগম কৃক।

আওয়ামী লীগর সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের নির্বাচিতদের নাম ঘোষণা করেন।

শনিবার বিকালে রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে সংগঠনের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে এই নেতৃত্ব নির্বাচিত হয়।

২০০৩ সালের ১২ জুলাই মহিলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলনে অনুষ্ঠিত হয়। ওই সম্মেলনে আশরাফুন্নেসা মোশাররফ সভাপতি ও পিনু খান সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

এর আগে একজন কাউন্সিলর শাফিয়া খাতুনের নাম সভাপতি হিসেবে প্রস্তাব করেন ও একজন কাউন্সিলর সমর্থন করেন। এ ছাড়া সভাপতি পদে সদ্য সাবেক কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক পিনু খানের নাম প্রস্তাব ও সমর্থন করা হয়। সাধারণ সম্পাদক পদে সদ্য সাবেক কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমুদা বেগম কৃক, শিরীন রোখসানার নাম প্রস্তাবিত ও সমর্থিত হয়। সাধারণ সম্পাদক পদে আরও প্রার্থী হন শিরীন রুখসানা ও মুর্শেদা বেগম লিপি।

দ্বিতীয় অধিবেশনে কাউন্সিলররা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে তাদের নাম প্রস্তাব করেন। পরে কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটে তারা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

সাফিয়া খাতুনের নাম প্রস্তাব করেন বগুড়া জেলা মহিলা লীগের সভাপতি খাদিজা খাতুন ও সমর্থন করেন পাবনা জেলা মহিলা লীগের সভাপতি নাদিয়া ইয়াসমিন জলি। অপর প্রার্থী পিনু খানের নাম প্রস্তাব করেন খুলনা জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হোসনে আরা চম্পা। সাধারণ সম্পাদক পদে মাহমুদা বেগম কৃকের নাম প্রস্তাব করেন বাগেরহাট জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শরিফা খানম ও প্রস্তাব করেন সাতক্ষীরা জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জোসনা আরা। শিরিন রুখসানার নাম প্রস্তাব করেন কুষ্টিয়া জেলা মহিলা লীগের সভাপতি জেবুন্নেছা সবুজ ও সমর্থন করেন নাটোর জেলা মহিলা লীগের সভাপতি রত্না আহমেদ।  মুর্শেদা বেগম লিপির নাম প্রস্তাব করেন বরিশাল মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিতু।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম