সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিচারিক আদালতের প্রতি অনাস্থা জানিয়ে তা পরিবর্তনে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আবেদন মঞ্জুর করেছেন হাইকোর্ট। মামলাটি সিনিয়র বিশেষ জজ (ঢাকা মহানগর দায়রা জজ) আদালতে স্থানান্তর করা হয়েছে। একইসঙ্গে মামলাটি ৬০ দিনের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে বলা হয়েছে।

খালেদা জিয়ার করা এ সংক্রান্ত আবেদন নিষ্পত্তি করে বুধবার (৮ মার্চ) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানি করেন করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী। অপরদিকে দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান।

আদালতের এ আদেশের বিষয়ে দুদক আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেছেন, আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি এ আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করার কিছু নেই। কারণ আদালত স্থানান্তর হলেও মামলাটি ৬০ দিনের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে বলেছেন। আমাদের প্রয়োজন মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি, এই আদেশে সেই বিষয়টি রয়েছে। তবে দুদক কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা পাওয়ার পর এ বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

এর আগে খালেদা জিয়ার আবেদনের ওপর গত ৫ মার্চ শুনানি শেষ হয়। সেদিনই এ বিষয়ে আদেশের জন্য ৮ মার্চ দিন ধার্য করা হয়েছিল।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি বিচারিক আদালতের প্রতি অনাস্থা জানিয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন খালেদা জিয়া। মামলাটি বর্তমানে রাজধানীর বকশীবাজারে অবস্থিত আবু আহমেদ জমাদারের বিশেষ আদালত-৩ এ বিচারাধীন রয়েছে।

মামলার বিবরণীতে জানা যায়, ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা দায়ের করে দুদক। এতিমদের সহায়তা করার উদ্দেশ্যে একটি বিদেশি ব্যাংক থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ এনে এ মামলা দায়ের করা হয়।

খালেদা ছাড়াও এ মামলার অপর আসামিরা হলেন- বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, সাবেক সাংসদ ও ব্যবসায়ী কাজী সালিমুল হক কামাল, সাবেক মুখ্যসচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ ও জিয়াউর রহমানের বোনের ছেলে মমিনুর রহমান।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম