সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সকল প্রশিক্ষণে শতকরা ৩০ ভাগ নারীর অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বুধবার রাজধানীতে নারীদের নিয়ে গুগলের এক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, তথ্য প্রযুক্তিতে নারীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিতে কাজ করছে আইসিটি বিভাগ। আমাদের সকল প্রশিক্ষণে কমপক্ষে ৩০ শতাংশ নারীরা অংশগ্রহণ করছে। আমাদের অনেক প্রকল্পের মধ্যে ইশপ কার্যক্রমের উদ্যোগতাদের মধ্যে প্রায় অর্ধেক নারী।

সরকারের আইসিটি বিভাগের সহযোগিতায় গুগল উইমেন টেকমেকার্স বাংলাদেশ পর্বের আয়োজনে ঢাকার আগারগাওয়ে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল ভবনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে চতুর্থবারের মত অনুষ্ঠিত  হয়  ইন্টারন্যাশনাল উইমেন ডে সেলিব্রেশন ২০১৭ শীর্ষক সম্মেলন যেখানে সারা দেশ থেকে ৩০০ জন্য নারী নিবন্ধনের মাধ্যমে অংশগ্রহণ করেন।

পলক বলেন, প্রযুক্তিতে নারীদের অংশগ্রহণ বাড়াতে গুগলের উইমেন টেকমেকার্সের কার্যক্রমের পরিধি বাড়ছে। আমাদের দেশের  উইমেন টেকমেকার্সের লিড রাখসান্দা রুখাম গুগলের সম্মেলনে শীর্ষ বক্তা হিসেবে বাংলাদেশকে গর্বিত করেছে। আইসিটি বিভাগের পক্ষ থেকে টেকমেকার্সের সকল উদ্যোগে পাশে থাকতে চাই। বর্তমানে নারীদের ক্ষমতায়নের সবচেয়ে বড় হাতিয়ার হলো তথ্য প্রযুক্তি।

উদ্বোধনী পর্বেরর পর সম্মেলনে অংশগ্রহনকারী রুম্মান মোশারিফার হাতে ল্যাপটপ তুলে দিয়ে ‘টেকমেকার্সের সদস্যদের জন্য ল্যাপটপ’ কর্মসুচীর ঘোষণা দেন প্রতিমন্ত্রী। টেকমেকার্সের সম্পৃক্ত মেয়েদের জন্য ১০০০ ল্যাপটপ দেয়ার ঘোষণা দেন প্রতিমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আইসিটি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সুশান্ত কুমার সাহা, বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের সাধারণ সম্পাদক মুনির হাসান, বেসিস সহ-সভাপতি ফারহানা রহমান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবটিক্স বিভাগের প্রধান লাফিফা জামাল ও গুগল ডেভেলপার গ্রুপের উপদেষ্টা আরিফ নিজামী।

বর্তমান প্রযুক্তি এবং স্টার্টআপ সম্পর্কে নারীদের অংশগ্রহন বিষয়ক আলোচনা পর্ব পরিচালনা করেন উইমেনটেক মেকার্স বাংলাদেশ পর্বের প্রধান রাখসান্দা রুখাম।

পাশাপাশি ওমেন ডেভেলপমেন্ট প্যানেল ডিসকাশন, টেকটক, ক্যারররিয়ার প্লানিংয়ের উপর অধিবেশন অনুষ্ঠিত সম্মেলনে।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম