সংবাদ শিরোনাম

 

ক্রীড়া প্রতিবেদক : বিনা উইকেটে ১১৮।দ্রুত তা হয়ে গেল ২ উইকেটে ১২৭।৯ রানে হারাতে হলো ২ উইকেট। দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ হবার কিছু আগে পরপর দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে গেল বাংলাদেশ।যেটা হবার কথা ছিল না।

প্রথমে ‘বিরল’ রান আউট হয়ে ব্যক্তিগত ৫৭ রানে ফিরে যান তামিম ইকবাল। তামিম ফিরে যাবার পর মুমিনুল আউট হন মাত্র ৭ রান করে। দিলরুয়ান পেরেরার বলে এলবি হন মুমিনুল। অনেক দিন ধরেই সেভাবে ভালো করতে পারছেন না মুমিনুল।

উইকেটে আছেন সৌম্য সরকার (৬১) ও মুশফিকুর রহিম। বাংলাদেশের রান তখন দুই উইকেটে ১৩৩।

ব্যাট করতে নেমে গলেতে দারুণ শুরু করেছিল বাংলাদেশ। অসাধারণ ব্যাট করেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। ইনিংসের শুরুতে একটু জড়তা থাকলেও ধীরে ধরে তা কাটিয়ে ওঠেন ওপেনারদ্বয়।

হাফ সেঞ্চুরি করেন দুই ওপেনারই। ৮৬ বলে হাফ সেঞ্চুরি করেন সৌম্য সরকার। টেস্টে এটা তার দ্বিতীয় হাফসেঞ্চুরি।

যদিও শুরুতে একটি জীবন পেয়েছিলেন তিনি। নিজের ৪ রান রানের মাথায় স্লিপে ক্যাচ দিয়েছিলেন সৌম্য সরকার। কিন্তু লাকমালের বলে ওঠা সেই ক্যাচ ড্রপ করেন দিলরুয়ান পেরেরা। জীবন পাওয়ার পর আরো গোটা দুয়েক বাজে শট খেলেন সৌম্য। তবে ভাগ্য ভালো থাকায় বেঁচে যান তিনি। এরপর থেকে নিজেকে সামলে নেন সৌম্য।

এরআগে কুশল মেন্ডিসের ক্যারিয়ার সেরা ১৯৪ রানের অসাধারণ ইনিংসে ভর করে শ্রীলঙ্কা(১২৯.১ওভারে)অলআউট হয়েছে ৪৯৪ রানে।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম