সংবাদ শিরোনাম

 

মোশারফ হোসাইন ঝিনাইগাতী, ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : শেরপুরের  সীমান্তবর্তী উপজেলা ঝিনাইগাতীর মানিককুড়া গ্রামে ঝাড়ফুকের নাম করে হাজার হাজার টাকা আতœস্বাধ ও প্রায় শতাধীক পরিবারকে প্রতারিত করেছে মিরা নামে এক মহিলা ও তার এক সহযোগী। এলাকাবাসী ও ভিক্টিম রা জানান, মহিলা দুইজন মাইন উদ্দিন (ভীন আলীর) বাড়ীতে আশ্রয় নিয়ে জানুয়ারি মাস থেকে ঝাড়ফুক করে আসছেন। এর আগেও তারা চলে গিয়ে আবার ফিরে এসেছে ও ঝাড় ফুক দেওয়ার নামে এলাাকা বাসীর নিকট থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন এই দুই মহিলা। কবিরাজ ঝাড়ফুক করণ মহিলাদের সংগে কথা বলে জানাযায়, ঝাড়ফুকের মাধ্যমে তারা র্হাড ডায়াবেটিক্স সহ মহিলাদের সকল প্রকার রোগে চিকিৎসা করেন। এলাকাবাসী সূত্রে জানাযায় , তাদেরকে এলাকার কিছু  সংখ্যক লোক সহযোগিতা করছেন। ঝাড়ফুক ধারীর সহযোগীর নিকট  থেকে তাদের  নিজ বাড়ীর কথা জিজ্ঞাসা করলে একবার বলে বাড়ী দেওয়ান গঞ্জ, আবার কখনো কখনো বলে  বকশীগঞ্জ। ঝাড়-ফুক ধারী মহিলা মিরাকে জিজ্ঞাসা করলে সে জানায়,তার বাবার বাড়ী ভারতের দিল্লীতে। এলাকাবাসীরা আরো জানান, প্রতারিত হওয়ার পর ধারনা করা হচ্ছে  মহিলাদের ঝাড়ফুকের পাশাপাশি আরো কোন অসৎ ধান্দা থাকতে পারে বলে সন্দেহ  শুরু  হলে। ৬মার্চ রাতের আধারে তারা পালিয়ে যায় তবে এলাকাবাসীদের জাদু টোনার মাধ্যমে বান মারার হুমকি দিয়ে যাওয়ার  গুজব সারা গ্রামে ছড়িয়ে পরেছে। এলাকাবাসীর ধারনা সে আবার ফিরে আসতে পারে তাই এ বিষয়ে ঝিনাইগাতী বাসীর সচেতনতা বৃদ্ধি করণ ও প্রশাসনে হস্তক্ষেপ কামনা করা হল।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম