সংবাদ শিরোনাম

 

ক্রীড়া ডেস্ক : উপল থারাঙ্গার সেঞ্চুরির বদৌলতে সফরকারী বাংলাদেশের বিপক্ষে বড় সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা। চতুর্থদিনের দ্বিতীয় সেশনের শেষ হওয়ার আগে ৬ উইকেট হারিয়ে তারা ইনিংস ঘোষণা করেছে ১৭৪ রানে। এই সুবাদে বাংলাদেশের সামনে টার্গেট দাঁড়িয়েছে ৪৫৭ রান। জয়ের জন্যে ব্যাটিংয়ে নেমেছে বাংলাদেশ।

উইকেটে আছেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার।

ব্যক্তিগত ১১৫ রানে তাকে সরাসরি বোল্ড আউট করে সাজঘরে ফেরান মেহেদী হাসান মিরাজ। এ ইনিংসে তিনি ১১টি চার ও ২টি ছক্কা হাঁকিয়েছেন।

আসিলা গুনারত্নে উইকেটে এসে ৩ বল মোকাবিলা করেই সাকিবের ডেলিভারিতে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফিরেছেন। তিনি কোন রান সংগ্রহ করতে পারেননি। এরপর নিরোশান দিকবালাও খুব বেশিক্ষণ ক্রিজে টিকতে পারেননি। ব্যক্তিগত ১৫ রানে মিরাজের বল উইকেটরক্ষকের হাতে দিয়ে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন তিনি।

এর আগে দিনের শুরু থেকেই শ্রীলঙ্কা নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসের শুরু থেকেই বেশ সাবলীল ভঙ্গিতে এগিয়ে চলছিল। দুই ওপেনার করুনারত্নে ও থারাঙ্গার জুটি থেকে দলে ৬৯ রান আসে। ২৩তম ওভারে এসে থারাঙ্গা-করুনারাত্নের ওপেনিং জুটি ভেঙে ব্রেকথ্রু এনে দেন তাসকিন আহমেদ। ডিপ স্কয়ার লেগে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের হাতে ধরা পড়েন করুনারত্নে (৩২)।

এরই মধ্যে হাফ সেঞ্চুরি করেছেন থারাঙ্গা। তাকে যোগ্য সমর্থন যুগিয়ে চলছিলেন প্রথম ইনিংসে ১৯৪ রান করা কুশাল মেন্ডিস। তবে তাকে ব্যক্তিগত ১৯ রানে সাজঘরে ফিরিয়ে বাংলাদেশ শিবিরে কিছুটা স্বস্তি ফেরান সাকিব।

এ প্রতিবেদনটি লেখা অব্দি শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৪ উইকেটে ২০১ রান। এরই মধ্যে ৪২২ রানে এগিয়ে গিয়েছে স্বাগতিকরা।উইকেটে রয়েছেন দিনেশ চান্দিমাল (৩৫) এবং দিলরুয়ান পেরেরা (১৪)।

এর আগে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার মধ্যকার প্রথম টেস্টের তৃতীয় দিনের শেষ সেশনের খেলা বৃষ্টি জন্য পরিত্যক্ত হয়। পরে চতুর্থ বৃষ্টি না থাকার কারণে নির্ধারিত সময়ের ১৫ মিনিট আগেই মাঠে নামে দুই দল। তবে বৃষ্টি না হলেও আকাশে মেঘের আনাগোনা রয়েছে।

ম্যাচের তৃতীয় দিনে বৃষ্টি শুরুর আগে বৃহস্পতিবার (৯ মার্চ) নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৩১২ রানে গুটিয়ে গেছে বাংলাদেশ শিবির। মুশফিকুর রহিমের ৮৫, তামিম ইকবালের ৫৭ ও সৌমৗ সরকারের ৭১ রানের সুবাদে এ সংগ্রহ করে বাংলাদেশ।

স্বাগতিকদের হয়ে দিলরুয়ান পেরেরা এবং রঙ্গনা হেরাথ ৩টি করে উইকেট নিয়েছেন।

এর আগে স্বাগতিকরা নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৪৯৪ রান জমা করে স্কোরবোর্ডে। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ১৯৪ রান করেন কুশাল মেন্ডিস। এছাড়াগুনারত্নের ৮৫, ডিকওয়েলার ৭৫ এবং দিলরুয়ান পেরেরার ৫১ রান স্বাগতিকদের সংগ্রহও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে স্কোরবোর্ডে।

বাংলাদেশের পক্ষে এই ইনিংসে সর্বাধিক ৪ উইকেট নিয়েছেন স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ। এ ছাড়া মুস্তাফিজুর রহমান ২টি এবং তাসকিন, শুভাশীষ ও সাকিব একটি করে উইকেট নিয়েছেন।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম