সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : বন্যাপ্রবণ ১৯ জেলায় ৬০ হাজার বাড়ি উঁচু করা হবে। তবে প্রাথমিকভাবে উঁচু করা হবে দুস্থ ও অসহায় পরিবারের বাড়ি।

শুক্রবার ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া।

জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। দিবসটির এ বছরের প্রতিপাদ্য ‘দুর্যোগের প্রস্তুতি সারাক্ষণ, আনবে টেকসই উন্নয়ন’।

মন্ত্রী বলেন, যেসব দুস্থ ও অসহায় পরিবারে কর্মক্ষম ব্যক্তি নেই অথবা পরিবারপ্রধান প্রতিবন্ধী ব্যক্তি বা নারী এবং যাদের ঘরবাড়ি উঁচু করার সামর্থ্য নেই, প্রাথমিকভাবে তাদের ঘরবাড়ি উঁচু করে দেওয়া হবে।

তিনি আরো বলেন, টেকসই উন্নয়নের পূর্বপ্রস্তুতি হিসেবে বন্যা সহনশীল জাতি গঠনে সরকার এ পদক্ষেপ নিয়েছে। উপকূলীয় এলাকায় জলোচ্ছ্বাস থেকে রক্ষা পেতে সাহায্য করার জন্য সরকার ৫৫ হাজার সিপিপি কর্মী প্রস্তুত রেখেছে। মানুষের জানমাল রক্ষার জন্য পুরাতন ২০০ মুজিব কিল্লা সংস্কার করা হবে এবং আরো ২০০ মুজিব কিল্লা নির্মাণ করা হবে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী জানান, এ বছর সময়ের আগেই দেশে ঝড়-তুফান ও সমুদ্রে নিম্নচাপ শুরু হয়েছে। তাই সার্বক্ষণিক সতর্ক থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

১০৯০ নম্বরে কল করে প্রতিদিনের আবহাওয়া বার্তা জেনে ঘর থেকে বের হতে বা সেভাবে প্রস্তুতি নিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শাহ কামাল। বক্তব্য রাখেন- দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রিয়াজ আহমেদ।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম