সংবাদ শিরোনাম

 

গল থেকে ক্রীড়া প্রতিবেদক : গল টেস্টের শেষ দিন। যেরকম উইকেটের চিন্তা করেছিল বাংলাদেশ তার থেকেও ভালো উইকেট পেয়েছিল। মুশফিকুর রহিম ম্যাচ শেষে সরাসরি বলে দিয়েছেন,‘উইকেটে কোনো সমস্যা ছিল না।’ তাহলে সমস্যা কোথায় ছিল? কেন শেষ দিনে মাত্র তিন ঘন্টা পাঁচ মিনিটে দশ উইকেট হারাবে বাংলাদেশ?

মুশফিকুর রহিম সরাসরি বললেন,‘দ্রুত কয়েকটি উইকেট হারিয়ে ফেলার কারণেই ম্যাচ হেরে আমাদের চড়া মূল্য দিতে হল।’ মুশফিক আশা করেছিলেন শুরুর দিকে ব্যাটসম্যানরা একটু দায়িত্ব নিয়ে ব্যাটিং করতে পারলে এ ম্যাচ বাঁচানো যেত। কিন্তু শুরুর দিকে দ্রুত উইকেট হারানোয় চড়া মূল্য দিতে হয়েছে টিম বাংলাদেশকে। মুশফিক এক প্রশ্নের জবাবে বলেছেন,‘পঞ্চম দিনের প্রথম আধঘণ্টা- এক ঘন্টা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। কিন্তু দুঃখজনকভাবে আমরা ভালো কিছু করতে পারিনি। প্রথম পাঁচজন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে ফেলার পর কাজটা সম্ভব হয়নি।ওখান থেকে আর ফিরে ম্যাচ বাঁচানো সম্ভব হয় না। পাশাপাশি প্রতিপক্ষ বোলারদের লাইন-লেন্থ ঠিক রেখে বোলিং করে যায়। তখন সব কিছু আরো কঠিন হেয় যায়।’

শ্রীলঙ্কা দুই ইনিংসে রান পেয়েছে। সেখানে বাংলাদেশ পিছিয়ে ছিল ব্যাটিং। বোলার ও ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার পাশাপাশি ফিল্ডিংয়ে তিনটি ক্যাচ ছেড়েছে বাংলাদেশ। তাইতো মুশফিক বলেছেন,‘আমাদের যেমন পরিকল্পনা ছিল, তা আমরা প্রয়োগ করতে পারিনি। আমরা তিন বিভাগেই শ্রীলঙ্কার চেয়ে বাজে খেলেছি। শ্রীলঙ্কাই এই ম্যাচটা জয়ের যোগ্য দাবিদার।’

শ্রীলঙ্কা দুই পেসার ও তিন স্পিনার খেলে সফল। অন্য দিকে বাংলাদেশ দু্ই স্পিনার ও তিন পেসার নিয়ে মাঠে নেমেছিল। একাদশ নির্বাচনেও মুশফিকুর রহিমরা বিচক্ষণতা দেখাতে পারেনি। চতুর্থ ও পঞ্চম দিন থেকে বল টার্ন করা শুরু করবে তা প্রায় সবারই জানা। সেখানে বাংলাদেশের একাদশে মাত্র দুই স্পিনার! মুশফিকের মতে একাদশ নির্বাচনে কোনো সমস্যা ছিল না। তার ভাষ্য,‘আমরা যদি ড্র করতাম, তাহলে কিন্তু এই প্রশ্নটা আসত না।একাদশ ঠিকঠাক ছিল।’


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম