সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : করপোরেশনের মূলধনের পরিমাণ নির্ধারণের ক্ষমতা সরকারের হাতে রেখে ‘বাংলাদেশ শিল্প-প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ আইন, ২০১৭’ এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

সচিবালয়ের সোমবার (১৩ মার্চ) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘১৯৭২ সালের রাষ্ট্রপতির ১৬ নম্বরের আদেশের মাধ্যমে শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলো জাতীয়করণ করা হয়। পরবর্তী সময়ে আরও কিছু সংশোধনী আনা হয়। সামরিক শাসনামলের হওয়ায় আইনটি পরিমার্জনসহ বাংলায় করে আনা হয়েছে।’

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘জাতীয়করণ করা শিল্প-প্রতিষ্ঠানের মধ্যে পেট্রোবাংলা আগে এরমধ্যে ছিল। এটি বাদ দেওয়া হয়েছে, কারণ পেট্রোবাংলা জ্বালানি ও খনিজসম্পদ বিভাগের আওতায় চলে গেছে।’

‘পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয় এবং শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন যে করপোরেশনগুলো আছে তাদের সঙ্গে আলাপ করে তালিকাটা শুদ্ধ এবং সংখ্যাগতভাবে সঠিকতা যাচাই করে এখানে আনা হয়েছে। ভুল-টুল যা ছিল ঠিক করে দেওয়া হয়েছে।’

শফিউল আলম বলেন, ‘করপোরেশনের অনুমোদিত মূলধন কি পরিমাণ হবে সেই ক্ষমতাটা সরকারের হাতে রাখা হয়েছে।’

আগের আইন থেকে অনেকগুলো জিনিস বাদ দিয়ে খসড়াটি তৈরি করা হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘জাতীয়করণের কারণে শিল্প প্রতিষ্ঠান সরকারের কাছে ন্যস্ত হয়ে যাওয়ায় আইন থেকে ন্যস্ত করার বিধান বাদ দেওয়া হয়েছে। কোম্পানি আইনের প্রযোজ্যতা নতুনভাবে আইনে সংযোজন করা হয়েছে। আগের আইন থেকে ক্ষতিপূরণ প্রদানের অংশটিও বাদ দেওয়া হয়েছে।’

আগের আইনের তফসিলে জাতীয়করণ করা আড়াই শ’র বেশি শিল্প প্রতিষ্ঠানের তালিকা ছিল জানিয়ে শফিউল আলম বলেন, ‘কেবল সরকারের বর্তমানের শিল্প-প্রতিষ্ঠানের নাম প্রস্তাবিত আইনের তফসিলে রাখা হয়েছে। যেগুলো বিরাষ্ট্রীকরণ ও বিক্রি হয়ে গেছে সেগুলো এরমধ্যে রাখা হয়নি।’

নতুন আইনের তফসিলে জাতীয়করণ করা ১০৯টি শিল্প-প্রতিষ্ঠানের তালিকা রয়েছে বলেও জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

বিএডিসি আইন অনুমোদন
মন্ত্রিসভা ‘বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন আইন, ২০১৭’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন (বিএডিসি) আইনটি ১৯৬১ সালের জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এটি ইংরেজিতে ছিল, এখন বাংলায় অনুবাদ করে নতুনভাবে আনা হয়েছে। এখানে তেমন কোন পরিবর্তন আনা হয়নি। তবে অপ্রয়োজনীয় কিছু ধারা বাদ দেওয়া হয়েছে।’


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম