সংবাদ শিরোনাম

 

ক্রীড়া ডেস্ক : বাংলাদেশ নিজেদের শততম টেস্টে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টসে হেরে ফিল্ডিংয়ে নেমেছেন মুশফিকরা। ঐতিহাসিক এ ম্যাচে জয় দিয়ে সিরিজে সমতা ফেরানোর লক্ষ্যে মাঠে নামে টাইগাররা।প্রথম সেশনে রাজত্ব ধরেরেখে মধ্যাহ্ন বিরতিতে গেছে বাংলাদেশ।

বুধবার (১৫ মার্চ) কলম্বোর পি সারা ওভালে টসে জিতে বাংলাদেশকে ফিল্ডিংয়ের আমন্ত্রণ জানান শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক রঙ্গনা হেরাথ।

এদিন বেশ সতর্কতার সঙ্গে খেলে চলছিলেন শ্রীলঙ্কার দুই ওপেনার দিমুথ করুনারত্নে এবং উপল থারাঙ্গা। প্রথম তিন ওভার তারা কোন রানই সংগ্রহ করেননি। এরপর ম্যাচের চতুর্থ ওভারে শুভাশীষ রায়ের ওভারে ৫ রান জমা করে এ দুই ওপেনার।

তবে ম্যাচের নবম ওভারে দলীয় ১৩ রানে মুস্তাফিজ নিজের চতুর্থ ওভারে এসে তুলে নিয়েছেন করুনারত্নের উইকেটটি। মুস্তাফিজের বলটি করুনারত্নের ব্যাটের কানায় লেগে মেহেদী হাসান মিরাজের হাতে ধরা পড়ে। আউট হওয়ার আগে তার সংগ্রহ ৭ রান।

ম্যাচের ১১তম ওভারে মুস্তাফিজের পঞ্চম ডেলিভারিটি থারাঙ্গার প্যাডে আঘাত করলে এলবিডব্লু’র আবেদন জানান। আর এতে আম্পায়ার সাড়াও দেন। তবে শ্রীলঙ্কা রিভিউ নিলে তা তাদের পক্ষেই যায়।

এর পরের ওভারেই মিরাজ তুলে নেন কুশাল মেন্ডিসের (৫) উইকেটটি। এতে বাংলাদেশ শিবিরে স্বস্তিই এসেছে বলা যায়। কেননা এই মেন্ডিসই গল টেস্টে ১৯৪ রানের ইনিংস খেলেছিলেন।

উপল থারাঙ্গা ক্রিজে থিতু হওয়ার আভাসই দিচ্ছিলেন। তবে তাকে ফিরিয়ে বাংলাদেশ শিবিরকে আনন্দে ভাসিয়েছেন মিরাজ। দলীয় ৩৫ রানে ১৬তম ওভারে মিরাজের বল সৌম্য সরকারের হাতে দিয়ে সাজঘরে ফিরেন থারাঙ্গা। আউট হওয়ার আগে তার সংগ্রহ ১১ রান।

দিনেশ চান্দিমাল ও অসিলা গুনারত্নে জুটি দলকে সতর্কভাবে এগিয়ে নিয়ে চলছিলেন। এ জুটি দলে ৩৫ রান যোগ করেন। এরপরই শুভাশীষ রায়ের এলবিডব্লুর ফাঁদে পড়ে বিদায় নিতে হয়েছে গুনারত্নেকে। ১টি চারের মারে ১৩ রান করে বিদায় নেন তিনি।

এ প্রতিবেদনটি লেখা অব্দি শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৭০ রান। উইকেটে রয়েছেন দিনেশ চান্দিমাল।

এর আগে সিরিজের প্রথম টেস্টে গলে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ২৫৯ রানে হার মানতে হয়েছে বাংলাদেশকে। এবার সেই হতাশা ভুলে নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসে শততম টেস্টে ঘুরে দাঁড়ানোর চ্যালেঞ্জ তাদের সামনে। মাইলফলকের ম্যাচে সেরা একাদশ নিয়েই মাঠে নামছে বাংলাদেশ।

ঐতিহাসিক এ টেস্টে ফর্মহীনতায় দল থেকে বাদ পড়েছেন অভিজ্ঞ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এদিকে এই ম্যাচে গ্লাভস হাতে উইকেটরক্ষকের ভূমিকায় থাকছেন মুশফিকুর রহিম। কারণ, নেটে ব্যাটিং অনুশীলনের সময় পাঁজরে বলের আঘাতে ছিটকে পড়েছেন লিটন দাস। লিটনের বদলে দলে জায়গা পেয়েছেন মোসাদ্দেক হোসেন।

একাদশে ফিরেছেন ফিটনেস সমস্যা কাটিয়ে দলে ফেরা ইমরুল কায়েস ও গল টেস্টে সুযোগ না পাওয়া সাব্বির রহমান। এছাড়া মুস্তাফিজুর রহমানও শুভাশীষ দলে থাকলেও বাদ পড়েছেন তাসকিন আহমেদ। আর দলে জায়গা পেয়েছেন তাইজুল ইসলাম।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, মোসাদ্দেক হোসেন, মুশফিকুর রহিম (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), সাকিব আল হাসান, সাব্বির রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান, শুভাশীষ রায়।

শ্রীলঙ্কা একাদশ: দিমুথ করুনারাত্নে, উপল থারাঙ্গা, কুশাল মেন্ডিস, দিনেশ চান্দিমাল, অসিলা গুনারাত্নে, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, নিরোশান দিকবালা (উইকেটরক্ষক), দিলরুয়ান পেরেরা, রঙ্গনা হেরাথ (অধিনায়ক), সুরাঙ্গা লাকমাল, লক্ষণ সান্দাকান।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম