সংবাদ শিরোনাম

 

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন টেস্ট দিয়ে।বাংলাদেশ টেস্ট স্ট্যাটাস পায় ২০০০ সালে। তার এক বছর পরই টেস্ট অভিষেকের মধ্য দিয়ে জাতীয় দলে প্রবেশ মাশরাফির। কিন্তু ক্যারিয়ার জুড়ে ইনজুরির কারণে টেস্ট খেলা হয়েছে মাত্র ৩৬টি। ২০০৯ সালে খেলেছেন শেষ টেস্ট।

টেস্ট ক্যারিযার তার অপূর্ণ থাকলেও দেশের অনেক সাফল্যের কারিগর তিনি। তার হাত ধরেই ওয়ানডেতে বাংলাদেশ এখন বড় দল। এসেছে বড় বড় জয়। ২০০৪ সালে দেশের মাটিতে ভারতের বিপক্ষে শততম ওয়ানডে খেলেছিল বাংলাদেশ। ঐ ম্যাচে ভারতে হারিয়ে চমক দেখিয়েছিল টাইগাররা। সেখানে অসাধারণ পারফরম্যান্সের জন্য মাশরাফি জিতেছিলেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার।

রবিবার শততম টেস্ট ম্যাচ জিতে নেয় মুশফিকরা। দলে ছিলেন না মাশরাফি। তবে অনুশীলন ফেলে পুরো দিনের খেলা দেখেছেন ড্রেসিংরুমে বসে। ম্যাচ শেষে মুশফিকদের আনেন্দে হয়েছেন সামিল।

দেশের হয়ে শততম টেস্ট খেলতে না পারলেও মাঠে বসে ঐতিহাসিক জয়টা তো দেখেছেন। আর এ কারণেই নিজেকে ভাগ্যান মনে করছেন মাশরাফি। বলেছেন,‘শততম টেস্ট আমরা জিততে পেরেছি, বাংলাদেশের জন্য এটা বিরাট বড় ব্যাপার। আর সবার জন্যই শততম টেস্ট ম্যাচের জয় দেখা আনন্দের ব্যাপার। আমরা ওয়ানডে খেলতে এসেছি, ড্রেসিংরুমে ঢোকার সুযোগ হয়েছিল। ওদের অনুভূতিটা কেমন ছিল, সেটা দেখতে পেরেছি। আমি বলব যে, আমরা খুব ভাগ্যবান। আমি নিজেও ভাগ্যবান, এই আনন্দে শরিক হতে পেরেছি।’


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম