সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : আজ ২২ মার্চ, বিশ্ব পানি দিবস। ১৯৯৩ সালে জাতিসংঘের সাধারণ সভা এ দিনটিকে পানি দিবস হিসেবে ঘোষণা করে।

১৯৯২ সালে ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরোতে জাতিসংঘ পরিবেশ ও উন্নয়ন সম্মেলনের (ইউএনসিইডি) এজেন্ডা ২১-এ প্রথম বিশ্ব পানি দিবস পালনের আনুষ্ঠানিক প্রস্তাবটি উত্থাপিত হয়।

আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতির পর ১৯৯৩ সাল থেকে পানি সংরক্ষণ ও উন্নয়নের উপর গণসচেতনতা সৃষ্টিতে প্রথম বিশ্ব পানি দিবস পালিত হয়। সারাবিশ্বে বিভিন্ন আনুষ্ঠানিকতায় পালিত হচ্ছে এ দিনটি। শুরু থেকে এ পর্যন্ত একেক বছর একেক ধরনের প্রতিপাদ্য নিয়ে পালন করা হয় দিবসটি।

এ বছরের বিশ্ব পানি দিবসের প্রতিপাদ্য ‘পানি ও বর্জ্য পানি’। চলমান বৈশ্বিক অর্থনীতিতে বর্জ্য পানিকে একটি মূল্যবান সম্পদ হিসেবে মনে করা হয়। বর্জ্য পানির নিরাপদ ব্যবস্থাপনা মানবস্বাস্থ্য, পরিবেশ-প্রতিবেশ, জীববৈচিত্র্য ও বাস্তুসংস্থানের জন্য একটি সঠিক বিনিয়োগ বলে মনে করেন পরিবেশবাদীরা। তাদের মতে, বর্জ্য পানির উন্নত ব্যবস্থাপনা মানে জাতিসংঘের পানি-বিষয়ক টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যের উন্নয়ন।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও আজ (বুধবার) নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে দিবসটি পালিত হবে। এ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন।

বিশ্ব পানি দিবস উপলক্ষে সরকারের জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর, এনজিও ফোরাম ফর ড্রিংকিং ওয়াটার সাপ্লাই অ্যান্ড স্যানিটেশন, ইউনিসেফ, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং বিশ্বব্যাংকের ওয়াটার অ্যান্ড স্যানিটেশন প্রোগ্রাম সম্মিলিতভাবে দেশব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে।

দিবসটি উপলক্ষে বেসরকারি সংস্থা ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) এক মানববন্ধনের আয়োজন করেছে। সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া ১৩টি ইয়েস গ্রুপের সদস্য, টিআইবিকর্মী, সদস্য এবং বিভিন্ন সমমনা সংগঠনের সদস্যবৃন্দ মানববন্ধনে উপস্থিত থাকবেন।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম