সংবাদ শিরোনাম

 

মো: রুকুনুজ্জামান , পার্বতীপুর প্রতিনিধি : মোবাইল ফোনে কথা বলতে না দেওয়াকে কেন্দ্র করে পার্বতীপুরে স্কুল ছাত্রীর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে।

উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের ছোট হরিপুর হিন্দু পাড়া গ্রামের অজিত রায়ের মেয়ে নবম শ্রেনীর ছাত্রী মল্লিকা রায় (১৬) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

জানা যায়, ইদানিং অধিকাংশ সময় পড়াশোনা না করে মোবাইল ফোনে কথা বলায় তার বড় বোন ফোন কেড়ে নিলে ক্ষিপ্ত হয়ে সে এ হেন কাজ করে। আশংকা জনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় ল্যাম্ব মিশনারী হাসপাতালে ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বর্তি করা হয়। আজ শনিবার ভোরে সে মারা যায়।

এদিকে,বাবার উপর অভিমান করে এক মেধাবী ছাত্রী ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। নতুন বাজার খোলাহাটী রোড এলাকার কৈশিক পালের মেয়ে রাজন্য পালের মেয়ে রাজন্য পাল তিনু (১৩) নামের ৮ম শ্রেনীর এক মেধাবী ছাত্রী বাবার ওপর অভিমান করে গলায় ফাঁস দিয়ে এ আত্মহত্যা করে। সে পিএসসিতে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি পেয়েছিল। এবার তিনুর জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার কথা থাকলেও তা আর হলো না।

এ ব্যপারে পার্বতীপুর মডেল থানার অসিার ইনচার্জ (তদন্ত) ইমতিয়াজ কবির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন ।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম