সংবাদ শিরোনাম

 

বিনোদন ডেস্ক : ১৯৯৫ সালের কথা। সবে তখন ৯ বছরে পা দিয়েছেন হালের প্রথম সারির অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশা। নাম লিখিয়েছিলেন বিটিভিতে প্রচারিত নতুন কুঁড়ি প্রতিযোগিতায়। অর্জন করেছিলেন প্রথম স্থান। কচি হাতে তুলে নিয়েছিলেন জাতীয় পুরস্কারের মতো বড় একটি সম্মাননা। সেই থেকে তার পথচলা শুরু।

শিশুশিল্পী হিসেবে মূলত গান করতেন তিশা। তবে ১৯৯৭ সালে হঠাৎ তার শখ হলো অভিনয় করবেন। করলেনও। অনন্ত হীরার ‘সাতপেড়ে কাব্য’ নামের একটি নাটকে শিশুশিল্পী হিসেবে প্রথম অভিনয় করেন তিনি। পরে ২০০৩ সাল থেকে অভিনয় ও মডেলিংয়ে পুরোদস্তুর ব্যস্ত হয়ে পড়েন।

তবে যে গানের মাধ্যমে তার পরিচিতি সেই গানকে ভোলেননি তিনি। গড়ে তোলেন ‘তিশা এঞ্জেল ফোর’ নামের একটি ব্যান্ড।

নতুন কুঁড়ির চ্যাম্পিয়ন সেই তিশা এখন বাংলাদেশের একজন জনপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী। টিভি নাটকের মাধ্যমে অভিনয়জীবন শুরু হলেও ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রেও কাজ করেছেন। খুব অল্প সময়ের মধ্যে নাট্য ও চলচ্চিত্র জগতের সব শ্রেণির দর্শকের কাছে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন এ অভিনেত্রী।

তিশার চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় স্বামী মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর হাত ধরে। ২০০৯ সালে ফারুকীর পরিচালনায় ‘থার্ড পারসন সিঙ্গুলার নাম্বার’ ছবিতে নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। জনপ্রিয় অভিনেতা মোশাররফ করিমের বিপরীতে অভিনয় করে প্রথম ছবিতেই শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে অর্জন করেন ‘মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার’।

ক্যারিয়ারে এখন পর্যন্ত ৯টি ছবিতে অভিনয় করেছেন তিশা। শাকিব খানের বিপরীতে ‘রানা পাগলা’ এবং তৌকির আহমেদের ‘হালদা’ ছবি দুটি এখনো মুক্তি পায়নি। শোনা যাচ্ছে, ডিসেম্বরে মুক্তি পাবে ‘হালদা’। তিশা অভিনীত ছবিগুলোর চারটিরই পরিচালক তার স্বামী মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। ২০১০ সালের ১৬ জুলাই ফারুকীকে বিয়ে করেন তিশা।

সর্বশেষ গত ২৭ অক্টোবর মুক্তি পেয়েছে তিশা অভিনীত বহুল আলোচিত ছবি ‘ডুব’। মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত ছবিটিতে তিশার সহশিল্পীরা হলেন বলিউড অভিনেতা ইরফান খান, কলকাতার পার্ণো মিত্র এবং বাংলাদেশের রোকেয়া প্রাচী।

ছবিটি যৌথভাবে প্রযোজনা করেছে বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়া এবং কলকাতার এসকে মুভিজ। এ ছাড়া সহ-প্রযোজক হিসেবে আছেন অভিনেতা ইরফান খান। বাংলাদেশ, ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার ৮১টি প্রেক্ষাগৃহে দেখানো হচ্ছে ছবিটি।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম