সংবাদ শিরোনাম

 

বিশেষ সংবাদদাতা : সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, বাংলাদেশ ধর্মীয় সম্প্রীতির এক উর্বর ক্ষেত্র। হাজার বছর ধরে এ দেশে হিন্দু, মুসলমান, বৌদ্ধ, খ্রিস্টানসহ বিভিন্ন ধর্ম ও সম্প্রদায়ের লোকজন শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করে আসছে।

তিনি বলেন, বৌদ্ধ ধর্ম মানবতা ও শান্তির কথা বলে। এটি আমাদের অহিংসা, সম্প্রীতি ও সাম্যের শিক্ষা দেয়। গৌতম বুদ্ধের শিক্ষা প্রকৃতভাবে অন্তরে ধারণ করলে সমাজ থেকে হিংসা-বিদ্বেষ, খুন-রাহাজানিসহ সব ধরনের অনৈতিক কর্মকাণ্ড লোপ পাবে।

শুক্রবার সকালে রাজধানীর সবুজবাগস্থ ধর্মরাজিক বৌদ্ধ বিহারে রাজকীয় থাই দূতাবাসের সহযোগিতায় বাংলাদেশ বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘ আয়োজিত ‘কঠিন চীবর দানোৎসব ২০১৭’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথি বলেন, রাজকীয় এ কঠিন চীবর দানোৎসব উদারতা ও দাক্ষিণ্যের স্মারক বহন করে যা সকল ধর্মের মূল তত্ত্ব। তিনি বলেন, এ উৎসব দুই দেশের মধ্যে কেবল ধর্মীয় সহযোগিতাকে জোরদার করবে না বরং সাংস্কৃতিক বিনিময় ও অর্থনৈতিক সহযোগিতার ক্ষেত্রকে আরো সম্প্রসারিত করবে।

তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, এ ধরনের পবিত্র উৎসব ও অনুষ্ঠান আয়োজনের মধ্য দিয়ে বন্ধুপ্রতিম দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের বন্ধন আরো দৃঢ়তর হবে।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত থাইল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত পানপিমন সুওয়ান্নাপংসে, থাইল্যান্ডের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সংযুক্ত অ্যাম্বাসেডর লিন্না টাংথাসিরি, বাংলাদেশ বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘের সভাপতি সংঘনায়ক শুদ্ধানন্দ মহাথেরো, সাধারণ সম্পাদক প্রণব কুমার বড়ুয়া, সহসভাপতি রঞ্জিত কুমার বড়ুয়া ও যুগ্ম মহাসচিব ড. বিক্রম প্রসাদ বড়ুয়া।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম