সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেছেন, ‘এক সময় বাংলাদেশি হিসেবে বিদেশে পরিচয় দিতে লজ্জা পেতাম। এখন গর্বের সঙ্গে পরিচয় দিই। অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য এখনও যারা বিদেশে অবস্থান করছেন তারাও বুক ফুলিয়ে বাংলাদেশি পরিচয় দেন।’

বুধবার (০৮ নভেম্বর) রাজধানীর শেরে বাংলানগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিসিআইসি) আয়োজিত এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী এমএ মুহিত বলেন, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন হচ্ছে। তবে এটা খুব বেশি না হলেও আশাব্যঞ্জক। আগামী ৫ বছরে এই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী দেশগুলো আমাদের দিকে তাকিয়ে থাকবে।

‘পুঁজিবাজারে এখন সম্ভাবনাময় সময় যাচ্ছে। এটাকে ধরে রাখতে হবে। বর্তমান যে অবস্থায় আছে, এটা অর্থনীতিকে এগিয়ে নিচ্ছে। বর্তমানে এটা একটা গ্যাদারিং (অগোচালো), খুব হেল্পফুল নয়। তবে আমি আত্মবিশ্বাসী, এর দিকে আন্তর্জাতিকভাবে যারা গেম করে তারা নোটিশ করবেন।’

এমএ মুহিত বলেন, করপোরেট ট্যাক্স আদায় হতাশাজনক। এটা লজ্জার কথা। আমি এটা বাড়ানোর চেষ্টা করেও পারিনি। এখনও কম রয়েছে।

অর্থনৈতিক উন্নয়নে সরকারের ভূমিকা তুলে ধরে তিনি বলেন, গত ৮-৯ বছরে অনেক উন্নয়ন হয়েছে। পাবলিক, প্রাইভেট বিনিয়োগ বেড়েছে। এজন্য মানুষের মানুষের মানসিকতারও পরিবর্তন হয়েছে।

‘দেশে গরিবরা আরও গরিব হচ্ছে। তবে এ সংখ্যা আগের মতো নেই। আমরা যে উন্নয়ন করেছি, এর ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে ২০১৮ থেকে ২০২৩ সালের মধ্যে দেশ দারিদ্র্যমুক্ত হবে।’

‘রাইজিং অ্যাওয়ারনেস অন ভেরিয়াস অ্যাসপেক্টস অব দ্য ক্যাপিটাল মার্কেট’ শীর্ষক সেমিনারটি আয়োজন করে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব পাবলিকলি লিস্টেট কোম্পানিস (বিএপিএলসি)।

সেমিনারে অন্যদের মধ্যে বিএপিএলসি-এর প্রেসিডেন্ট আজিজ খান, ভাইস প্রেসিডেন্ট আনিস খান, নির্বাহী কমিটির সদস্য আরিফ খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম