| |

সর্বশেষঃ

/ রংপুর বিভাগ

রৌমারীতে বিনা মূল্যে বীজ ও সার বিতরণ করেলন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

September 02, 2020

শওকত আলী মন্ডল রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি : প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো.জাকির হোসেন বলেছেন, শেখ হাসিনা সরকার দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করেছে। বর্তমান সরকার কৃষি বান্ধব সরকার। কৃষকের উন্নয়নের জন্য সরকার সর্বদা কাজ করে যাচ্ছে। আওয়ামীলীগ সরকার বিশ^াস করে কৃষক বাঁচলে, এ দেশ বাঁচবে। এরই ধারাবাহিকতায় ন্যায্য মূল্যে সঠিক সময়ে কৃষকের কাছ থেকে ধান, ও গম ক্রয় করছে সরকার। কৃষকের মাঝে কৃষি প্রণোদনা হিসাবে বিনা মূল্যে বীজ, সার, নগদ অর্থ ও কৃষি খাতে ব্যয় কমানোর জন্য উন্নত প্রযুক্তির যন্ত্রপাতি সরবরাহ করা হচ্ছে। বীজ, সার নিয়ে কৃষকের মাঝে নেই কোনো হাহাকার। দেশে এখন সারের কোনো সঙ্কট নেই। তিনি আরও বলেন, সঠিক সময়ে কৃষকের মাঝে বীজ, সার, কৃষি যন্ত্রপাতি...

ব্রীজ আছে এ্যাপ্রোচে মাটি নেই, জনদূর্ভোগ চরমে

August 24, 2020

শওকত আলী মন্ডল , রৌমারী (কুড়িগ্রাম) : কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী উপজেলায় ইজলামরী গ্রামের জিঞ্জিরাম নদীর উপর ও বড়াইবাড়ি গ্রামের ধর্নী নদীর উপর ব্রীজ নির্মাণ করা হলেও সংযোগ রাস্তা না থাকায় বিজিবিসহ জনসাধারনকে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। কর্মহীন হয়ে পড়েছে প্রায় শতাধীক অটোরিকসা, অটোভ্যান ও অটোবাইক চালক। মানবেতর জীবন যাপন করছেন তারা। জীবনের ঝুকি নিয়ে পারাপার হচ্ছে শিক্ষক, ব্যবসায়ী ও কোমলমতি স্কুল শিক্ষার্থী। দূর্ঘটানার শিকার হয়ে পঙ্গুত্ব জীবন যাপন করছেন অনেকেই। এ বিষয়ে বিভিন্ন দপ্তরে জানানো হলেও কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেন না কর্তৃপক্ষ। সাবেক সংসদ সদস্য রুহুল আমিনের সময়ে এলাকার মানুষের কষ্টের কথা চিন্তা করে জিঞ্জিরাম ও ধর্নী নদীর উপর ব্রীজের বরাদ্দ...

রৌমারীতে বন্যার পানি নামছে ঘরে ফিরছে মানুষ, দুর্ভোগ বাড়ছে এলাকায়

August 10, 2020

শওকত আলী মন্ডল রৌমারী (কুড়িগ্রাম) ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলা বন্যা কবলিত এলাকা থেকে পানি নেমে যাচ্ছে। ঘরে ফিরতে শুরু করেছে বানভাসি মানুষ। গ্রামে গ্রামে লন্ডভন্ড রাস্তাঘাট ও ঘরবাড়ি দেখে বানভাসি মানুষের দুর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে। বাড়ির চাঁর পাশেই শুধু পচাঁ স্তুপ ও দুর্গন্ধ। ফসলি জমি গুলোতেও কাঁদা মাটি ও পচাঁ স্তুপের দুর্গন্ধ। কিভাবে থাকবে তারা। তাই এখনো অনেকেই আশ্রয় কেন্দ্রে বা উচু রাস্তার উপর খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছে। উপজেলার বন্যা কবলিত এলাকায় ক্ষতিগ্রস্থ গ্রাম গুলোর ঘরবাড়ি রাস্তাঘাট, গাছ পালাসহ জনপদ এখনো লন্ডভন্ড। বন্যার পানির সাথে যুদ্ধ করে খেয়ে না খেয়ে কোন রকম দিন গুলি পারি জমিয়েছে মানুষ। ভরা বন্যাকালিন...

রৌমারীতে বন্যায় দু’টি প্রাথমিক বিদ্যালয় বিলিনসহ ব্যাপক ক্ষতি

August 08, 2020

শওকত আলী মন্ডল, রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি : ৬ টি নদ-নদী দ্বারা বেষ্টিত কুড়িগ্রামের সীমান্তবর্তি উপজেলা রৌমারী। প্রবল বর্ষন ও ভারতীয় পাহাড়ি ঢলে ব্রহ্মপুত্র নদ ও জিঞ্জিরাম নদীর বন্যার পানি বৃদ্ধি পেয়ে উপজেলার ১১৪টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে প্রায় ১০০ টি বিদ্যালয় বন্যার পানিতে তলিয়ে যায়। তন্মধ্যে বলদমারা ও ফলুয়ারচর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় দু’টি নদী গর্ভে বিলিন হয়ে গেছে। বাকি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলি ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। ব্রহ্মপুত্র নদ দ্বারা ভারত থেকে প্রবাহিত হয়ে আসা পাহাড়ি ঢলে একং একটানা ভারী বর্ষণের ফলে ব্রহ্মপুত্র নদ, হলহলি , সোনাভরি, জিঞ্জিরাম দর্নী ও কালাপানি নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে রৌমারী উপজেলা...

ডালিয়া পয়েন্টে রেড অ্যালার্ট, তিস্তা পাড়ে ’৯৮-র মতো বড় বন্যার পদধ্বনি

July 14, 2020

বিশেষ সংবাদদাতা : ১৯৯৮ সালের মতো বড় বন্যার পদধ্বনি শুরু হয়েছে তিস্তা নদীর প্রবেশ দ্বারে। উজানের ঢল ও অতিবৃষ্টির কারণে ওপাশে ভারত ছেড়ে দিয়েছে গজলডোবার ব্যারাজের পানি। আর সেই পানির তোড় সামলাতে না পেরে লালমনিরহাট ও নীলফামারী জেলার মধ্যবর্তী তিস্তা ব্যারাজে খুলে রাখা হয়েছে ৪৪টি স্লুইস গেট। যা দিয়ে প্রতি সেকেন্ডে তিস্তা অববাহিকায় নামছে ২ হাজার ৪৫৭ কিউসেক পানি। ডালিয়া পয়েন্টে সোমবার (১৩ জুলাই) সকাল থেকে বিপৎসীমার ৫২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পাউবোর গেজ পাঠক নুরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন। এদিকে, তিস্তার নদীগর্ভ সংস্কার কখনও না হওয়ায় এই পানি প্রবল বেগে তীর উছলে ঢুকে পড়ছে আশেপাশের গ্রামগুলোতে। ফলে প্রথম দফার বন্যায় প্লাবিত হওয়ার...

রৌমারীতে জিঞ্জিরাম নদী গর্ভে ঘরবাড়ী ভাঙন রোধে মানববন্ধন

July 10, 2020

শওকত আলী মন্ডল, রৌমারী (কুড়িগ্রাম) ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : কুড়িগ্রামের রৌমারীতে জিঞ্জিরাম নদী ভাঙন রোধের দাবিতে মানববন্ধন করা হয়েছে। ৯ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকাল ৩ টার দিকে উপজেলার বকবান্ধা ব্যাপারী পাড়া নদীর তীরে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এ মানববন্ধনে ৫টি গ্রামের মানুষ মানববন্ধনে অংশ গ্রহন করেন।মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, জিঞ্জিরাম নদী সুরক্ষা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন মহির, শিক্ষক আক্কাস আলী, খোরশেদ আলম, এমদাদ হোসেন, এরশাদুল হক, ইউপি সদস্য আবু সাঈদ, সাবেক ইউপি সদস্য সিরাজুল ইসলাম, শিক্ষক শাহনবী, মহিদুল ইসলাম প্রমুখ।বক্তারা বলেন, গত বছর এবং আগত এ বছরের ভয়াবহ বন্যায় ১৫০টি পরিবার নদীগর্ভে বিলিন হয়েছে। গত দুই বছর আগে পানি উন্নয়ন বোর্ড...