সংবাদ শিরোনাম

প্রচ্ছদ

জামালপুরের ১৮৮ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাঠদান বন্ধ

  জামালপুরে বন্যার পানি ঢুকে পড়ায় জেলার ১৬৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ২৩ মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাঠদান বন্ধ রয়েছে। শিক্ষা অফিস সূত্র জানায়, জেলায় এক হাজার ১৬১টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ৫৯১টি

পানির মধ্যে বসবাস, দুর্ভোগের শেষ নেই

যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় জামালপুরে বন্যা পারস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। সেইসঙ্গে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে ৮০ হাজারের বেশি মানুষ। তলিয়ে গেছে প্রায় তিন হাজার ৫০০ হেক্টর জমির ফসল।  

বকশীগঞ্জে নদী ভাঙনে মানচিত্র থেকে বিলীন হচ্ছে আবাদি জমি

পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে জামালপুরের বকশীগঞ্জে দশানী নদীর ভাঙন বেড়েছে। বিলীন হচ্ছে বসতবাড়ি ও ফসলি জমি। তারপরেও নদীভাঙন প্রতিরোধে কোনো ব্যবস্থা নেই বকশীগঞ্জ উপজেলায়। স্থানীয়রা চেষ্টা করেও ভাঙন ঠেকাতে পারছেন

জামালপুরে বন্যার আরও অবনতি, ৫০ হাজার মানুষ পানিবন্দি

  বৃষ্টি না থাকলেও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে জামালপুরের নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় পানিবন্দি হয়ে পড়েছে ৫০ হাজার মানুষ। বন্ধ হয়েছে ৫০টিরও বেশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বিভিন্ন জায়গায়

জামালপুরে বন্যায় ৪৬ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাঠদান বন্ধ

  জামালপুরে বন্যা পরিস্থিতি অবনতির ফলে ৪৬ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠদান বন্ধ রয়েছে। বেশকয়েকটি মাধ্যমিক স্কুল ও কলেজে পানি উঠলেও পাঠদান চালু রয়েছে। তবে যে কোনো সময় এটি বন্ধ হয়ে যেতে

জামালপুরে পাহাড়ি ঢল-বর্ষণ, দুর্ভোগে ২০ হাজার মানুষ

  জামালপুরে উজানের পাহাড়ি ঢল ও ভারী বর্ষণে যমুনাসহ অন্য নদ-নদীর পানি অব্যাহতভাবে বাড়ছে। এতে দুর্ভোগ অন্তত ২০ হাজার মানুষ। শনিবার (১৮ জুন) সকাল ৮টায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) সূত্র

 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম